ব্রহ্মপুত্র নদে থেকে বাবার মরদেহ উদ্ধার, খোঁজ মেলেনি মেয়ের

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের উলিপুরে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ বাবা সুলতান মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হলেও তার মেয়ের লাশ এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। নিখোঁজের একদিন পর শনিবার সকালে ডুবে যাওয়া স্থানের পাশেই সুলতান মিয়ার মরদেহ ভাসতে দেখে এলাকাবাসীরা তা উদ্ধার করে। তবে তার মেয়ে শিরিনা খাতুন এখনও নিখোঁজ রয়েছে।
নিহত সুলতান মিয়া বদরগঞ্জ উপজেলার মধ্যপাড়া গ্রামের কাচুয়া শেখের ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার মোল্লারহাট ঘাট থেকে সুলতান মিয়া (৪৪), তার স্ত্রী জোবেদা বেগম (২৯) ও তাদের মেয়ে শিরিনা খাতুন (১৩)সহ পরিবারের ৬ সদস্যকে নিয়ে নৌকায় সাহেবের আলগা ইউনিয়নের কাজিয়ার চর গ্রামের শ্বশুর আজিজ মোল্লার বাড়িতে দাওয়াত খেতে যাচ্ছিলেন তারা। পথিমধ্যে ফকিরের চর ও মশালের চরের মাঝামাঝি স্থানে বৈশাখি ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে নৌকার ১০ যাত্রীর ৮জন সাঁতরিয়ে তীরে পৌঁছতে পারলেও সুলতান মিয়া ও তার মেয়ে শিরিনা খাতুন নিখোঁজ হন।
শনিবার সকালে সুলতান মিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছে সুলতানের মেয়ে শিরিনা খাতুন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবর রহমান বলেন, শনিবার সকালে সুলতান মিয়ার লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা। পরে তার লাশ উদ্ধার করে দুপুরে তার পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

Share This: