পাহাড়ি এলাকায় ভারী বর্ষণের আশঙ্কা


নিউজ ডেস্ক: টানা ভারী বর্ষণে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের বিভিন্ন স্থান পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে ওই রুটে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এদিকে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে দুটি ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে।
শুক্রবার বিকেলে বৃষ্টি শুরুর পর সোমবার বিকেলে রাউজানের অন্তত ১৩টি স্থানে পানিতে ডুবে গেছে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়ক।
এছাড়া, আগামী ২৪ ঘণ্টায়ও ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন পতেঙ্গা আবওহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শেখ হারুনুর রশিদ।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৮১ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এর আগের বর্ষা মৌসুমে সর্বোচ্চ ২৩৯ মিলিমিটার বৃষ্টি বৃষ্টিপাতের রেকর্ড করা হয়েছিল। আগামী ২৪ ঘণ্টায়ও ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকতে পরে।
তিনি বলেন, চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বুধবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম ও আশপাশের এলাকায় ভারী বর্ষণ অব্যহত থাকবে। তাই পাহাড় ধসের সতর্কতা জারি থাকবে।

এদিকে চট্টগ্রাম রেল স্টেশন ম্যানেজার আবুল কালাম জানান, ট্রেনে ঈদ যাত্রার তৃতীয় দিনে ভারী বৃষ্টিতে লাইনে বিভিন্ন স্থানে ত্রুটির কারণে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় থাকা বিজয় ও চট্টলা এক্সপ্রেস ছাড়তে দেরি হচ্ছে।শীর্ষ নিউজ

Share This:

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.