কোর্ট খোলার সিদ্ধান্ত স্থগিত

করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভুদ পরিস্থিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে চেম্বার আদালত, হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এবং সপ্তাহে দুই দিন জেলা ও দায়রা জজ আদালত খোলার রাখার সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে আগামীকাল রোববার (২৬ এপ্রিল) ফুলকোর্ট সভা আহবান করা হয়েছে।

অনিবার্য কারণবশত আগামী ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত চেম্বার আদালত ও হাইকোর্ট খোলার সিদ্ধাস্ত স্থগিত করা হয়েছে। অন্যদিকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত জেলা ও দায়রা জজ-মহানগর দায়রা জজ এবং চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত খোলার সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে।

শনিবার সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপরিউক্ত বিষয়ে নির্দেশিত হয়ে জানোনে যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাথে আলোচনা করতে: এবং অন্যান্য আইনজীবীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২৩ এপ্রিল সীমিত পরিসরে কোর্ট খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া করা হয়। অনিবার্য কারণবশত আগামী ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত ওই সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হলো।

আগামীকাল রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফুল কোর্ট সভা আবহান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ এপ্রিল বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আগামী ৫ মে পর্যন্ত ছুটি বৃদ্ধি করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কঠোর সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে অতীব জরুরি বিষয়সমূহ শুনানির জন্য ছুটিকালীন সময়ে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্টে বসবেন।

তাছাড়া ছুটিকালীন সময়ে হাইকোর্ট বিভাগে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান সকল অধিক ক্ষেত্রের অতি জরুরি বিষয়গুলো শুনানির জন্য হাইকোর্ট বিভাগের কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।

আদালত পরিচালনার কর্মপন্থা নির্ধারণ এবং কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্ব অনুসরণের নিয়ম-কানুন এর বিষয়ে বিচারপতিগণ প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবেন।

এছাড়া জেলা ও দায়রা জজ আদালত সপ্তাহে দুই দিন বসবেন বলে জানানো হয়। এরপর আজ ফের বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আদালত খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে।

Share This: