কুড়িগ্রাম পিটিআই’র সংস্কার কাজ এগিয়ে চলছে

কুড়িগ্রাম পিটিআই চত্বরের পরিক্ষণ বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে কুড়িগ্রামের প্রাইমারী ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই)’র মাঠ ভরাট সহ সংস্কার কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- চলতি অর্থ বছরে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা প্রকৌশলীর আওতায় কুড়িগ্রাম পিটিআই’র সংস্কার কাজ শুরু করা হয়। এসব কাজের মধ্যে রয়েছে- পিটিআই-এর একাডেমিক ভবন, দু’টি মহিলা হোস্টেল, একটি পুরুষ হোস্টেল, মসজিদ, পানির পাম্প হাউজ  ও সীমানা প্রাচীর সংস্কার, পিটিআই চত্বরে অবস্থিত পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট, মহিলা হোস্টেলে অভিভাবকদের জন্য বসার রুম এবং গাড়ীর গ্যারেজ নির্মান। ইতোমধ্যে উল্লেখিত নির্মান কাজের ৩৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। অবশিষ্ট নির্মান ও সংস্কার কাজ চলতি অর্থ বছরের মধ্যেই সম্পন্ন করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র আশাবাদ ব্যক্ত করেছে।
পিটিআই সুত্র জানিয়েছে- গত ২০১৬ সালে ১ জানুয়ারী থেকে কুড়িগ্রাম পিটিআই’তে ডিপ্লোমা ইন প্রাইমারী এডুকেশন (ডিপিএড) কোর্স চালু করার পর এখানে মোট ৪১০ জন প্রাইমারী স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকাগণ ডিপিএড কোর্সে ভর্তি হয়েছে। সংস্কার কাজ সম্পন্ন হবার পর কুড়িগ্রাম পিটিআই-এর শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীগণ উপকৃত হবেন। বিশেষ করে পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের মাঠ মাটি দ্বারা ভরাট করায় ওই বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিশুরা এখন থেকে নিরাপদভাবে চলাফেরা করার সুযোগ পাবে।
এব্যাপারে কুড়িগ্রাম পিটিআই সংস্কার কাজের ঠিকাদার আব্দুর রাজ্জাকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান- নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার জন্য জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।
কুড়িগ্রাম পিটিআই-এর সুপারিনটেনডেন্ট মোঃ ফয়জুল ইসলাম জানিয়েছেন- প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে পিটিআই-এর প্রত্যেকটি স্থাপনা নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছিল। চলমান সংস্কার কাজের বদৌলতে সেই সমস্যাগুলির সমাধান হতে যাচ্ছে।
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা প্রকৌশলী (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোঃ শরিফুজ্জামান জানিয়েছেন- পিডিইপি প্রকল্পের মেয়াদ চলতি অর্থ বছরেই শেষ হবে। এ কারণে চলতি অর্থ বছরের মধ্যেই কুড়িগ্রাম পিটিআই-এর সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হবে।
একই প্রসঙ্গে কথা বলা হয়- কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান জানিয়েছেন- কুড়িগ্রাম পিটিআই-এর সংস্কার কাজগুলির গুণগতমান বজায় রাখার জন্য আমরা নিয়মিত তদারকি অব্যাহত রেখেছি।

Share This: