কুড়িগ্রামে পুলিশের হেফাজতে থাকা পালিয়ে যাওয়া আসামি আটক

কুড়িগ্রাম সদর থানার চৌকস অফিসার ইনচার্জ মাহফুজার রহমানের নেতৃত্বে
শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানে পুলিশ হেফাজতে থাকা এক আসামী পালিয়ে যাবার মাত্র ৮
ঘন্টার ব্যবধানে আটক হয়েছে।
ওই আসামীর নাম হামিদুল ইসলাম ওরেফে আলমুর। সে কুড়িগ্রাম শহরের হিঙ্গনরায়
দাদা মোড় এলাকার চৌধুরী পাড়া গ্রামের মৃত ইসমাঈল হোসেনের পুত্র।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়- আটককৃত আসামী কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী থানা এলাকায়
মাদক মামলায় আটক হয়। আজ ৮ মে দুপুর আড়াইটায় ওই আসামীকে নাগেশ্বরী থানা
পুলিশের দু’জন সদস্য ইজি বাইক যোগে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে নিয়ে আসার সময়
কুড়িগ্রামের পুরাতন ঈদগাহ মাঠের সামন থেকে সে লাফিয়ে নিজ গ্রাম চৌধুরী
পাড়ার পিছন দিক দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ খবর পাওয়া মাত্রই কুড়িগ্রাম
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান (বিপিএম) এর কঠোর নির্দেশনায় সদর
থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজার রহমানের নেতৃত্বে শুরু হয় শ্বাসরুদ্ধকর
অভিযান। কুড়িগ্রাম ছুটে আসেন নাগেরশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রওশন
কবীর। কুড়িগ্রামের সকল প্রবেশ দ্বারে বসানো হয় অস্থায়ী চেক পোষ্ট। নেয়া
হয় অভিনব কৌশল। অবশেষে আজ ৮ মে দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে কুড়িগ্রাম
ধরলা সেতুর পশ্চিম প্রান্তের মাটিকাটা মোড় এলাকায় পুলিশের পাতানো জালে সে
আটকা পড়ে। এখন সে কুড়িগ্রাম সদর থানার হেফাজতে রয়েছে।
কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজার রহমানের সাথে কুড়িগ্রাম
জেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমানের কথা হলে তিনি পালিয়ে
যাওয়া আসামীকে আটক করার কথা স্বীকার করে বলেন এসপি স্যারের নির্দেশনায়
পরিচালিত অভিযানে যারা সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছেন তাদের সকলের প্রতি
ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

Share This: