কুড়িগ্রামবাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান

সাংবাদিক বুলবুল ইসলাম বলেছেন, করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে। আমাদের দেশেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এ রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এমনকি করোনার এ তালিকায় বাদ পড়েনি আমাদের কুড়িগ্রাম জেলা। ইতোমধ্যে আমাদের সদর উপজেলার এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। বর্তমানে এই রোগ নিয়ে এলাকার মানুষ একপ্রকার আতঙ্কে আছে। এলাকার মানুষের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে, আতঙ্কিত না হয়ে সবাই যেন সচেতন হই।

কুড়িগ্রাম জেলা লক ডাউন ঘোষণা করছেন জেলা প্রশাসক। এই লক ডাউন সময়কালীন আমরা প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যেন না বের হই।

রবিবার (২৬ এপ্রিল) করোনাভাইরাস নিয়ে এলাকার মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে একান্ত স্বাক্ষাত কালে এই প্রতিবেদককে এসব কথা বলেন তিনি।

বুলবুল ইসলাম বলেন, এই রমজান মাসে ধর্মীয় রীতিনীতি পালন, সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অবলম্বন এবং সরকারের নির্দেশনা মেনে চললে অবশ্যই এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

তিনি এলাকার মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, দয়া করে এই বিপদে একজন আরেকজনের প্রতি আন্তরিক হবেন। এলাকার ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলা ফেরত ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা আমাদের ভাই/ চাচা। দয়া করে বিভিন্ন জেলা থেকে এলাকায় এসে ১৪ দিন হোম কোয়ারাইন্টেনে থাকবেন। পরিবারে আলাদা একটা রুমে কিছুদিন অবস্থান করবেন।

এ সময়টুকুতে কোনো অবস্থাতেই বাড়ির বাইরে বের হবেন না। আপনার সচেতনতায় শুধু আপনার পরিবার, সন্তান-সন্তানাদি নয় এলাকার মানুষ শান্তিতে থাকবে,সুস্থ থাকবে, নিরাপদ থাকবে।

তিনি আরও বলেন, অনেক স্থানে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ব্যক্তিগণ এলাকায় এসে নিজেদের ইচ্ছেমতো ঘুরাফেরা করছে। এই বিষয়ে আমাদেরকে সামাজিক সচেতনতা বাড়াতে হবে। বর্তমান সময়ে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ব্যক্তি ছাড়া আমাদের এলাকায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তারের সুযোগ কম। তাই বাহির থেকে আগত ভাইদের সচেতন হতে হবে ।

পরিশেষে তিনি বলেন, করোনার কারনে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা যদি সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে পারি তাহলে ইনশাআল্লাহ্ আমরা সবাই নিরাপদ থাকব। আমরা ঘরে থাকব, নিজেকে নিরাপদ রাখব। আল্লাহ্ আমাদের সকলের সহায় আছেন।

Share This: